trade-quality-jpg-ed

২২ বছরে পা রাখছে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। সে অনুপাতে বাড়েনি আন্তর্জাতিক মানের প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা।

এদিকে সরাসরি বিদেশি প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণ কমলেও মেলায় বেড়েছে নিম্নমানের আমদানিকৃত পণ্যের। এ অবস্থায় স্টল বরাদ্দের ক্ষেত্রে ম্যানুফ্যাকচারিং খাতকে গুরুত্ব দেয়ার পাশাপাশি মানদণ্ড নির্ধারণের পরামর্শ সংশ্লিষ্টদের।

দেশি বিদেশি ব্যবসায়ীদের মধ্যে একটি প্লাটফর্ম সৃষ্টির লক্ষ্যে ১৯৯৫ সালে শুরু হয় মাসব্যাপী দেশের সবচে বড় এই বাণিজ্য মেলা। দু'দশকে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার পরিধি যেমন বেড়েছে তেমনি বেড়েছে মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানের সংখ্যাও।

তবে নামে আন্তর্জাতিক হলেও গ্রামীণ মেলার মতো বারোয়ারি পণ্যের সমাহার হওয়ায় জৌলুস হারাচ্ছে এই মেলা। আন্তর্জাতিক মানের ব্র্যান্ডগুলোর উপস্থিতি না থাকায় বিদেশি ক্রেতা-দর্শণার্থীদের সমাগম হচ্ছেনা বলে মনে করেন মেলায় অংশগ্রহণকারীরা।

গতবার বাণিজ্য মেলায় ২২টি দেশ অংশ নিলেও এবার অংশ নিচ্ছে ২১টি। তবে বাণিজ্য সচিবের যুক্তি দীর্ঘ সময়ব্যাপী হওয়ায় খরচের বিষয়টি যুক্ত থাকায় সব দেশ এই মেলায় অংশগ্রহণ করতে আগ্রহী হয়না।

রোববার মাসব্যাপী ২২তম বাণিজ্য মেলার উদ্ধোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবার মেলায় মোট ৫৮০টি স্টল থাকবে।

en.Somoynews.tv